টাকা তোলার গুজবই, শিঁকেই তুলছে বিধি! ভিড় জমিয়েই চলছে ব্যাংক উৎসব।

করোনা সমস্যা বড়ো সমস্যা! সে সমাধানের জন্য ‘প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনা’য় করা সমস্ত মহিলাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টতে ৫০০ করে টাকা পাঠানোর সিদ্ধান্ত, কদিন আগেই নিয়েছে বিজেপি সরকার।

গত কয়েকদিন ধরেই এই টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আসছে। আর সেই টাকা তুলতেই, শিঁকেই উঠছে সমস্ত নিয়মাবলী। ভিড় জমছে সব ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায়। হুড়োহুড়ি করেই সকলেই চাইছেন সবার আগে টাকা তুলতে। এমনকি গুজব ছড়াচ্ছে, টাকা না তুললে নাকি টাকা আর থাকবে না।

আর, দেখা যাচ্ছে, তারজন্য একাধিক মানুষের লাইন পড়ছে। নির্দিষ্ট দূরত্ব না মেনে, মাস্ক না

পরেই চলছে লাইনে দাঁড়ানো। মাঝে মাঝে আবার অশান্তিও চলছে জোরকদমে!

শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীদের সঙ্গেও বেশি কথা বললেই শুরু হচ্ছে অশান্তি। কখনো পুলিশকে ধমকও দেওয়ার অভিযোগও শোনা যাচ্ছে।

যেমন, এইরকম নিদর্শন দেখা গেল, জয়নগর মজিলপুর ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার ব্রাঞ্চ-এ।

ঠিক সেরকমই আর‌ও একটি ব্যাংকের ব্রাঞ্চেও দেখা গেল। দত্তবাজারের কাছে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকে একই ঘটনা দেখা যায়। অভিযোগ, ওখানে বসবাসকারী অধিবাসীরাও অতিষ্ট হয়েছে এই ঘটনার জেরে।

অনেকে দাবি করছেন, “কি হবে এই ৫০০ টাকায়?” আবার অনেকে বলছেন, “টাকা এখন না তুললে টাকা ফেরত চলে যাবে”। প্রায় সকাল ৭ টা থেকে প্রত্যেক ব্যাংকে ভিড়। এদিকে, জয়নগর শাখার বঙ্গীয়গ্রামীণ ব্যাংকে হাতাহাতি শুরু হয়। এই ভিড় কমানোর আর্জি জানান প্রত্যেকে।

অনেকে এও অভিযোগ করছেন, পুলিশ যতক্ষণ থাকছে ততক্ষন সমস্যা কিছুটা এড়ানো গেলেও

এই রকম বিধিনিষেধ অমান্যর জন্য ‘করোনা’ আরও ক্ষতি ছড়াবে বলে মনে করছেন স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ।

১৭.০৪.২০২০

শিল্পা চ্যাটার্জী

দক্ষিণ ২৪ পরগনা